ঢাকা, শনিবার   ১৩ জুলাই ২০২৪ ||  আষাঢ় ২৮ ১৪৩১

সরকারের উন্নয়ন নিয়ে জনসাধারণের কাছে যাচ্ছেন ময়মনসিংহের ইঞ্জিনিয়ার মহিঊদ্দীন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪:৫৩, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

সরকারের উন্নয়ন নিয়ে জনসাধারণের কাছে যাচ্ছেন ময়মনসিংহের ইঞ্জিনিয়ার মহিঊদ্দীন

সরকারের উন্নয়ন নিয়ে জনসাধারণের কাছে যাচ্ছেন ময়মনসিংহের ইঞ্জিনিয়ার মহিঊদ্দীন

বর্তমান সরকারের উন্নয়ন নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের, আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী, শিক্ষক ও জনসাধারণের সাথে মতবিনিময় এবং গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. মহিঊদ্দীন।

গতকাল সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর পৌনে ২টা পর্যন্ত ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের জামিরদিয়া, সিডষ্টোর বাজার, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ অফিস, মেদুয়ারী ইউনিয়নের মুচিরঘাট, বাঘসাতারা মোড়ে।

এর আগে রবিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা সোয়া ৬টা পর্যন্ত জামিরদিয়ার মোড়, সিডষ্টোর বাজার, আওয়ামী লীগ অফিস, ভালুকা বাজার, উপজেলা মসজিদ মার্কেট এলাকা, ধীতপুর ইউনিয়নের ২৯ নং দেয়ালিয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দেয়ালিয়াপাড়া মোড়, বাদেপুরুড়া কাঠুয়া বাজার মোড় ও বহুলী মোড়ে এই মতবিনিময়-গণসংযোগ করেন।

জানা গেছে, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) ইঞ্জিনিয়ার মো. মহিঊদ্দীন। তিনি প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ছোট ছোট হাট-বাজার, আওয়ামী লীগ অফিসে কিংবা শহর-গ্রামগঞ্জে অলিতে-গলিতে চায়ের দোকানে নেতাকর্মী-জনগণের সাথে বসে চা-বিস্কুট, মিষ্টি ও ইত্যাদি খাওয়ান। এছাড়াও ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের প্রত্যেকটি অনুষ্ঠানে অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করেছেন।

১৯৬২ সালের ১৫ ডিসেম্বর ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের জামিরদিয়া গ্রামে সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন মো. মহিঊদ্দীন। তিনি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে ১৯৮৭ সালে বি.এস.সি.ইন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং উত্তীর্ণ হন মো. মহিঊদ্দীন।

তিনি ছাত্র জীবন থেকে অদ্যাবধি আওয়ামী লীগের প্রত্যেক সাংগঠনিক কর্মকান্ডে সক্রিয় অংশগ্রহণ করে, বঙ্গবন্ধু পরিষদ ও বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন প্রগতিশীল সংগঠনের দায়িত্বশীল পদে থেকে ভূমিকা পালন করে। এছাড়াও উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের জামিরদিয়া ঐতিহ্যবাহী হোসেন আলী সরকার একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা, কাচিনা ইউনিয়নের বাটাজোর সোনার বাংলা ডিগ্রী কলেজের আজীবন দাতা সদস্য, রেডত্রুিসেন্ট সোসাইটি-ময়মনসিংহের আজীবন সদস্য, ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলন ও উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের প্রতিষ্ঠানের সাথে উতপ্রোত ভাবে জড়িত রয়েছেন ইঞ্জিনিয়ার মো. মহিঊদ্দীন।

তিনি উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী-সমর্থক ও সাধারণ মানুষের সুখে-দুঃখে তাদের পাশে থাকেন। তিনি আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে অনেক নেতাকর্মী-সমর্থকদেরকে সাহায্য-সহযোগিতা করেছেন। এছাড়াও তৎকালীন বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা মোকাবেলায় অর্থ, পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা, নেত-কর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে মতবিনিময় ও উৎসাহ প্রদান করে ওই ইঞ্জিনিয়ার।

২০০১ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরবর্তী সময়ে বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে তান্ডবলীলা, অত্যাচারে অতিষ্ট হওয়ায় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের পাশে দাঁড়ান ও গ্রাম-গঞ্জের আনাচে-কানাচে গিয়ে কর্মী-সমর্থকদের মনোবল বৃদ্ধির পাশাপাশি ব্যাপক গণ-আন্দোলনের মাধ্যমে বিএনপি-জামাত জোটকে মোকাবেলা করার ক্ষেত্র তৈরিতে ভূমিকা রাখেন মহিঊদ্দীন।

তিনি নিজ উদ্যোগে ১৯৯১-১৯৯৬ পর্যন্ত সময়ে ওয়ার্ডে-ওয়ার্ডে আ. লীগের দলীয় অফিস নির্মাণ, দলের জাতীয়, স্থানীয় প্রতিটি অনুষ্ঠানের কর্মকান্ডে ঝাঁকজমক পূর্ণভাবে পালন করতে অর্থের যোগান দেন-আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ময়মনসিংহ ১১ (ভালুকা) আসনে এমপি পদে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. মহিঊদ্দীন। তিনি নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন পেয়ে এমপি হলে ভালুকাবাসীর জনসেবা ও উন্নয়ন ঘটবে বলে মনে করছেন সাধারণ ভোটাররা।

গণসংযোগ-মতবিনিময়কালে ভালুকা উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সিনিয়র খাইরুল আলম মল্লিক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক ফকির, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর এমরান হাসান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কুদ্দুস, বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ খালেক আকন্দ, মল্লিকবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্বাস উদ্দিন, উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুল ইসলাম জাকারিয়া, কৃষক লীগের সহ-সভাপতি মোঃ শরিফুল আলম খান, রাজৈ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নূরুল ইসলাম বাদশা, ধীতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান মো. লুৎফর রহমান খান শারফুল, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, হবিরবাড়ি ইউনিয়নের সিডষ্টোর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. বিল্লাল হোসেন, ধীতপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি মনিরুজ্জামান স্বপন, ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম, সহ-সভাপতি আবুল হাশেম, ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাদল শেখ, ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাবেক সভাপতি সুজন মেম্বার, কৃষক লীগের সহ-সভাপতি শাকের আহাম্মেদ শাহিন, ৭ নং ওয়ার্ড তাঁতী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. রাসেল ও দেয়ালিয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আতাউর রহমান শেখসহ আরও অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক ইঞ্জিনিয়ার মো. মহিঊদ্দীন বলেন, আমি আশা করি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ হতে আমাকে নৌকা প্রতীক দিয়ে ভালুকা উপজেলার জনগণের দীর্ঘ দিনের আকাঙ্ক্ষা পূরণ করবে। আমরাও নৌকাকে বিজয়ী করে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে পারবো। উন্নয়ন এর ধারাবাহিকতাকে অক্ষুন্ন রেখে আগামী প্রজন্মের স্মার্ট বাংলাদেশ ও বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে শেখ হাসিনার সরকার।

সারাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়