ঢাকা, সোমবার   ২৪ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১১ ১৪৩১

যেসব ফজিলতপূর্ণ দোয়া শিখে রাখা উচিত

ধর্ম ডেস্ক

প্রকাশিত: ২১:২৮, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

হজরত মুহাম্মদ (সা.) যখনই কোনো কঠিন সমস্যা বা বিপদের সম্মুখীন হতেন, তখনই আল্লাহর কাছে একান্তভাবে প্রার্থনা করতেন। বিপদ-আপদ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়, এমন অনেক দোয়া পবিত্র কোরআন ও হাদিসে বর্ণিত হয়েছে। দোয়াগুলো ছোট, সহজে মুখস্থও করা যায়। দেহ সজীব ও প্রাণবন্ত রাখার জন্য যেমন খাবার বা আহারের প্রয়োজন, তেমনি কলব বা রুহকে জীবিত রাখার জন্যও খাবারের প্রয়োজন হয়।

আর রুহ বা কলবের সেই খাবার হলো আল্লাহর জিকির করা। ইরশাদ হয়েছে, ‘সুতরাং তোমরা আমাকেই স্মরণ করো, আমিও তোমাদের স্মরণ করব। আর তোমরা আমার প্রতি কৃতজ্ঞ হও এবং অকৃতজ্ঞ হোয়ো না। ’ (সুরা আল-বাকারা, আয়াত: ১৫২)।

 (১) ﺭَﺑَّﻨَﺎ ﺗَﻘَﺒَّﻞْ ﻣِﻨَّﺎ ﺇِﻧَّﻚَ ﺃَﻧْﺖَ ﺍﻟﺴَّﻤِﻴﻊُ ﺍﻟﻌَﻠِﻴﻢُ

(রাব্বানা তাক্বাব্বাল মিন্না ইন্নাকা আনতাস সামিউল আলিম)

অর্থ: হে আমাদের প্রভু প্রতিপালক! আমাদের প্রচেষ্টাকে কবুল কর। নিশ্চয় তুমি সর্বশ্রোতা, সর্বজ্ঞানী!

(২) ﺭَﺑَّﻨَﺎ ﻭَﺍﺟْﻌَﻠْﻨَﺎ ﻣُﺴْﻠِﻤَﻴْﻦِ ﻟَﻚَ ﻭَﻣِﻦ ﺫُﺭِّﻳَّﺘِﻨَﺎ ﺃُﻣَّﺔً ﻣُّﺴْﻠِﻤَﺔً ﻟَّﻚَ ﻭَﺃَﺭِﻧَﺎ ﻣَﻨَﺎﺳِﻜَﻨَﺎ ﻭَﺗُﺐْ ﻋَﻠَﻴْﻨَﺂ ﺇِﻧَّﻚَ ﺃَﻧﺖَ ﺍﻟﺘَّﻮَّﺍﺏُ ﺍﻟﺮَّﺣِﻴﻢُ

(রাব্বানা ওয়াজআলনা মুসলিমাইনি লাকা ওয়া মিন যুররিইয়াতিনা উম্মাতাম মুসলিমা তাল্লাকা ওয়া আরিনা মানা ছিকানা ওয়া তুবআলাইনা ইন্নাকা আনতাত্তাওয়াবুর রাহিম। )

অর্থ: হে আমাদের প্রভু প্রতিপালক! আমাদেরকে আত্মসমর্পনকারী বানাও এবং আমাদের বংশধর থেকেও একটি আত্মসমর্পনকারী উম্মত সৃষ্টি করো। আমাদেরকে তোমার ইবাদতের পদ্ধতি শিক্ষা দাও এবং আমাদের প্রতি সদয় দৃষ্টিপাত করো। কারণ তুমিই পুনঃ পুনঃ সদয় দৃষ্টিপাতকারী, পরম দয়াময়।

(৩) ﺭَﺑَّﻨَﺎ ﺁﺗِﻨَﺎ ﻓِﻲ ﺍﻟﺪُّﻧْﻴَﺎ ﺣَﺴَﻨَﺔً ﻭَﻓِﻲ ﺍﻵﺧِﺮَﺓِ ﺣَﺴَﻨَﺔً ﻭَﻗِﻨَﺎ ﻋَﺬَﺍﺏَ ﺍﻟﻨَّﺎﺭِ

(রাব্বানা আতিনা ফিদ্দুনিয়া হাসানাতাও ওয়াফিল আখিরাতি হাসানাতাও ওয়াকিনা আযাবান্নার) 

অর্থ: হে আমাদের প্রভু প্রতিপালক! আমাদেরকে দুনিয়া ও আখিরাতের সর্বোত্তম কল্যাণ দান করো এবং আগুনের আযাব হতে আমাদের রক্ষা করো।

কেয়ামতের যত আলামত দৃশ্যমান

সূরা কাহাফ তিলাওয়াতে রয়েছে বিশেষ ফজিলত

করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণে বাধা নেই ইসলামে

নামাজে মনোযোগী হওয়ার কৌশল

(৪) ﺭَﺑَّﻨَﺎ ﻻَ ﺗُﺆَﺍﺧِﺬْﻧَﺎ ﺇِﻥ ﻧَّﺴِﻴﻨَﺎ ﺃَﻭْ ﺃَﺧْﻄَﺄْﻧَﺎ

(রাব্বানা লা তুআখিযনা ইন নাছিনা আও আখতানা)

অর্থ: হে আমাদের প্রভু প্রতিপালক! তুমি আমাদের পাকড়াও করোনা যদি আমরা ভুলে যাই ও ভুলবশত ত্রুটিবিচ্যুতি করে বসি।

(৫) ﺭَﺑَّﻨَﺎ ﻭَﻻَ ﺗَﺤْﻤِﻞْ ﻋَﻠَﻴْﻨَﺎ ﺇِﺻْﺮًﺍ ﻛَﻤَﺎ ﺣَﻤَﻠْﺘَﻪُ ﻋَﻠَﻰ ﺍﻟَّﺬِﻳﻦَ ﻣِﻦ ﻗَﺒْﻠِﻨَﺎ

(রাব্বানা ওয়ালা তাহমিল আলাইনা ইসরান কামা হামালতাহু আ’লাল্লাযিনা মিন ক্বাবলিনা)

অর্থ: হে আমাদের প্রভু প্রতিপালক! তুমি আমাদের ওপর এরুপ দায়িত্বভার অর্পন করোনা যেরুপ দায়িত্বভার অর্পন করেছিলে আমাদের পূর্ববর্তীদের ওপর!

(৬) ﺭَﺑَّﻨَﺎ ﻭَﻻَ ﺗُﺤَﻤِّﻠْﻨَﺎ ﻣَﺎ ﻻَ ﻃَﺎﻗَﺔَ ﻟَﻨَﺎ ﺑِﻪِ ﻭَﺍﻋْﻒُ ﻋَﻨَّﺎ ﻭَﺍﻏْﻔِﺮْ ﻟَﻨَﺎ ﻭَﺍﺭْﺣَﻤْﻨَﺎ ﺃَﻧﺖَ ﻣَﻮْﻻَﻧَﺎ ﻓَﺎﻧﺼُﺮْﻧَﺎ ﻋَﻠَﻰ ﺍﻟْﻘَﻮْﻡِ ﺍﻟْﻜَﺎﻓِﺮِﻳﻦَ

(রাব্বানা ওয়ালা তুহাম্মিলনা মা লা ত্বাকাতা লানা বিহি। ওয়া’ফুআন্না ওয়াগফিরলানা ওয়ারহামনা আনতা মাওলানা ফানছুরনা আলাল ক্বাওমিল কাফিরীন। )

অর্থ: হে আমাদের প্রভু প্রতিপালক! তুমি আমাদের ওপর এমন বোঝা চাপিওনা যা বহন করার শক্তি আমাদের নাই। তুমি আমাদের মার্জনা করো, আমাদের ওপর ক্ষমা করো, আমাদের প্রতি রহম করো। (কারণ) তুমিই আমাদের অভিভাবক। সুতরাং, কাফেরদের বিরুদ্ধে তুমি আমাদের সাহায্য করো।

নবী করিম (সা.) বলেছেন, সর্বশ্রেষ্ঠ জিকির হলো ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু’ এবং সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া হলো ‘আস্তাগফিরুল্লাহ’। আরও পড়তে পারেন সুবহানাল্লাহ, আলহামদুলিল্লাহ, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, আল্লাহু আকবার।

আল্লাহর কাছে কোনো দোয়া করার আগে প্রথমে দরুদ পড়া এবং দরুদ পড়ে দোয়া শেষ করা। কেননা আল্লাহ উভয় দরুদ কবুল করেন।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়